২৫ এপ্রিল, অনলাইন ডেস্কঃ ভাগ্য পরীক্ষা করতে অনেকেই জীবনে একবার হলেও লটারির টিকিট কিনেছেন। এছাড়া পুরস্কারের আশায় বিভিন্ন প্রতিযোগিতাতেও হয়তো নাম লিখিয়েছেন। সম্প্রতি তেমনি এক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে টেক্সাসের রেডিও স্টেশন ‘৯৬.৭ কিস এফএম’।

তাদের এই আয়োজন অদ্ভুতই বটে! সেখানে দীর্ঘ সময় চুমু খেয়ে পুরস্কার জেতার সুযোগ রাখা হয়েছিল। আপনি হয়তো এটুকু পড়েই রোমাঞ্চের শিহরণ পাচ্ছেন! কিন্তু চুমুটা খেতে হবে গাড়ির বডিতে। জিতলে পুরস্কার পাবেন সেই গাড়ি। কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠানটির নামের সাথে মিল রেখে এ ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে।

প্রতিযোগিতার নিয়ম অনুযায়ী, অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীকে টানা ৫০ ঘণ্টা গাড়িটিতে ঠোঁট লাগিয়ে চুমু খেয়ে যেতে হবে। প্রতি ঘণ্টায় ১০ মিনিট করে বিরতি দেওয়া হয়। এই ১০ মিনিটে প্রতিযোগীরা তাদের খাওয়া, গোসল বা বাথরুমের কাজ সারতে পারবেন। বিরতির সময় বাদে যদি কোনো প্রতিযোগী গাড়ি থেকে ঠোঁট বিচ্ছিন্ন করেন তাহলে তিনি প্রতিযোগিতা থেকে বাদ পড়বেন। এভাবে টানা ৫০ ঘণ্টা যিনি চুমু খেতে পারবেন তাকে বিজয়ী বলে ঘোষণা করা হবে। তবে একধিক প্রতিযোগী যদি বিজয়ী হন সেক্ষেত্রে লটারি করে একজনকে বিজয়ী বলে ঘোষণা করা হবে।

‘৯৬.৭ কিস এফএম’-এর এই প্রতিযোগিতায় প্রাথমিকভাবে ২০ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে ৫ জন প্রতিযোগিতার নিয়ম ভঙ্গের কারণে বাদ পড়েন। বেশ কয়েকজন স্বেচ্ছায় নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেন। প্রতিযোগীদের মধ্যে ২১ বছর বয়সি অ্যালিকা সংবাদমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, অংশগ্রহণের কিছুক্ষণ পরেই ঠোঁটে ফোস্কা পড়তে শুরু করে। ফলে আমি নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেই। অন্য একজন বলেন, আমার নাক খুব লাল হয়ে গিয়েছিল। তাই আমি নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছি।

প্রতিযোগিতার পৃষ্ঠপোষক আই হার্ট মিডিয়ার পরিচালক জেচারি ওয়েলস্ট্যান্ড বলেন, শুরুতে এটা বেশ মজার মনে হলেও আসলেই অনেক ধৈর্যের কাজ। যারা টিকে থাকেন তারা নানা রকম পন্থা অবলম্বন করেন। কেউ কানে হেড ফোন লাগিয়ে গান শোনেন, কেউ স্মার্ট ফোনে সময় কাটান, আবার কেউ বা চোখ বন্ধ করে পড়ে থাকেন।

প্রতিযোগিতার ৫০ ঘণ্টা যখন শেষ হয় তখন সাত জন প্রতিযোগী শেষ পর্যন্ত টিকে ছিল। তাদের মধ্যে থেকে লটারি করে ডিলানি জয়সুরিয়া নামক এক নারীকে ভাগ্যবান বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। তবে যারা রানার্সআপ হয়েছেন তাদেরকে একেবারেই হতাশ না করে একটি করে কনসার্টের টিকিট দেওয়া হয়।

Share

আরও খবর