সঞ্জয় নীল‘স্বাধীনতার নিঃশ্বাস’
সঞ্জয় নীল
শ্মশানের মাঝখানে
একটা শুকনো খুলি;
পাশে কিছু সবুজ ঘাস
আর তার সাথে আছে
একটা পুরান তরবারি,
কিছুটা দূরে উন্নত বসতি
আর অসংখ্য হাসিমাখা মুখ,
কিন্তু, কেউ জানেনা এই
অপরিচিত খুলির পরিচয়,
কে সে ? কি তার পরিচয় ?
সে কি ইতিহাসের কোন বীর ?
নাকি কোন বিশ্বাসঘাতক ?
শুধু একজন জানে এর পরিচয়
যিনি এই শ্মশানের রক্ষক,
কিন্তু, কেউ তাকে আজ পর্যন্ত
জিঞ্জাসা করেনি এর রহস্য,
একদিন এক যুবক এল
ডাকল বৃদ্ধকে, হে রক্ষক
এই খুলি কার ? কি তার পরিচয় ?
বৃদ্ধ অবাক হল, হাসল, বলল
এতোদিন পর মনে পড়ল তোর,
যাই হোক পথ ভুলে এসেছিল
জিঞ্জাসা যখন করেছিল তবে শোন-
এই যে বসতি দেখছিস আজ
হাস্যজ্জল প্রানের উল্লাসে মাতাল,
সব অবদান এক মহান পুরুষের,
কিন্তু, জানিস সে বড় অভাগা রে
কেউ তাকে মনে রাখেনি ভুল করেও
ইতিহাস ও ভুলে গেছে হয়তো
এমন কেউ ছিল কোনদিন,
কিন্তু আমি জানি সে ছিল সে আছে
তার জন্যই তোরা আছিস ওরা আছে,
বালক প্রশ্ন করে কে সে কি তার নাম ?
বৃদ্ধ খুলির দিকে আঙ্গুল দিয়ে বলে
এই যে তুই জিঞ্জাসা করলি এই খুলি কার
এই হোল সেই মহান পুরুষ যার জন্য
তুমি আমি আজও স্বাধীন, গাই মুক্তির গান,
আজ বলব তোকে তার কথা তার ইতিহাস
পারলে বলিস সবারে লিখে রাখিস অক্ষরে
যেন যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকে সে সবার ভিতরে
হয়ে সবার উল্লাস আর সাথে স্বাধীনতার নিঃশ্বাস ।।

Share

আরও খবর