ইমি1শাবনাজ সাদিয়া ইমি। বাংলাদেশের ফ্যাশন জগতের একজন সুপার মডেল ও সুঅভিনেত্রী। ফ্যাশন জগতে পার করেছেন তার এক যুগ। ‘টাইমস টু হ্যালো ’র সাথে আড্ডা দিলেন তিনি। বললেন তাঁর ব্যস্ততা ও ব্যক্তিগত জীবনের কথা। আজ তা নিয়েই আমাদের আয়োজন।

দি টাইমস ইনফোঃ শুভ নববর্ষ। আমি ‘দি টাইমস ইনফো ‘ থেকে বলছি।
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ শুভ নববর্ষ। জি বলুন।
দি টাইমস ইনফোঃ কেমন আছেন?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ ভাল।
দি টাইমস ইনফোঃ পহেলা বৈশাখ কেমন কাটল আপনার?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ পহেলা বৈশাখ আমার কাছে আলাদা একটা দিন। আমি পুরো বছর এই দিনটার জন্যই অপেক্ষা করি।
দি টাইমস ইনফোঃ কি কি করলেন পহেলা বৈশাখ?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ বন্ধুদের সাথে দেখা করলাম, ঘুরলাম। বি আই সি সি তে চ্যানেল আইয়ের বৈশাখ বরন অনুষ্ঠানে গেলাম। মজা করলাম, আপনাদের সাথে কথা বলছি এইতো!
দি টাইমস ইনফোঃ অনেক ব্যস্ত দিন কাটছে নিশ্চই?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ হ্যাঁ, বেশ ব্যস্ততাতেই কাটছে। শেষ দুই সপ্তাহ শুধু কাজ আর কাজ করেছি।
দি টাইমস ইনফোঃ কি কি কাজ করছেন?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ বর্তমানে ২ টা সিরিয়ালে কাজ করছি সেগুলোর শ্যুটিং নিয়েই ব্যস্ত আর তার পাশাপাশি র‍্যাম্পের শো রিহারসেল তো আছেই।
দি টাইমস ইনফোঃ আপনি এত বড় একজন মডেল, ফ্যাশন জগতে প্রথম কবে কাজ শুরু করলেন?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ ২০০১ সালে বিবি রাসেলে’র হাত ধরে আমার র‍্যাম্পে আসা। আর এটা হয়েছিল ‘ডি এইচ এল ফ্যাশন’ শো এর মাধ্যমে। আর মিডিয়াতে কাজ শুরু করেছি ২০০২ থেকে “you got the look” শো তে আমি প্রথম হই আর বলতে পারেন যাত্রা শুরু সেই থেকেই।
দি টাইমস ইনফোঃ ফ্যাশন জগতে আপনার আইকন বা আইডল কে?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আমার আইকন বলতে কেউ নেই তবে অনেককে ভাল লাগে। আদ্রিয়ানা লিমা, গওহর, লিসা বেলাফন্টানা, টুপা আরও অনেকে আর যার কথা না বললেই নয় আমাদের দেশের লিজেন্ড বিবি রাসেল।
দি টাইমস ইনফোঃ আপনার মতে একজন মডেল হতে হলে কি কি গুন থাকা দরকার?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ প্রথমত কাজের প্রতি কমিটমেণ্ট থাকতে হবে, গুড অ্যাটিটিউড থাকতে হবে, অনেক অনেক সুইফট কাজ করতে হবে, শরীর ঠিক রাখতে হবে, লম্বা হতে হবে। তবে এখানে একটা কথা বলা অবশ্যই জরুরী- সুন্দর চেহারা হলেই যে ভাল মডেল হওয়া যায় এটা ভুল ধারণা।
দি টাইমস ইনফোঃ বর্তমান ফ্যাশন জগত নিয়ে আপনার ভাবনা?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আসলে আমি এই প্রশ্নের ঊওর দেয়ার মতো যোগ্যতা রাখিনা। তবে আমি আমার কথা যদি বলি, আমরা যখন কাজ শুরু করেছিলাম তখন মডেলদের সাথে র‍্যাম্প ব্যবহার করা হতনা তবে এখন হয়। তাই বলব অবস্থানটা তৈরি হচ্ছে আর আশাকরি আরও ভাল হবে।
দি টাইমস ইনফোঃ আপনার ভবিষ্যৎ নিয়ে কোনও চিন্তা-
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আসলে আমি এমন কেউ নই যে কিছু পরিবর্তন করতে পারব। তবে এখন খুব ইচ্ছে করে যারা নতুন কাজ করতে আসছে তাদের জন্য কিছু করার। ভাবছি, একটা গ্রুমিং স্কুল খুলবো ওদের জন্য। তবে এখনও সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারিনি।
দি টাইমস ইনফোঃ মিডিয়া সম্পর্কে একটা নেতিবাচক ভাব অনেকের মধ্যেই আছে, এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য কি?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ খারাপ বা ভাল থাকা সম্পূর্ন নিজের উপর। আমি নিজেকেই উদাহরন দেব আমি যখন কাজ শুরু করি আমার পরিবারের অনেকেই ভাল চোখে দেখেনি। কিন্তু সেই তারাই কিন্তু আজ আমার জন্য গর্ব করছেন। তাই বলব কিছু কথা থাকবেই সব সময়। আর তা শুনেই নিজেকে গুছিয়ে কাজ করতে হবে।
দি টাইমস ইনফোঃ অনেক গম্ভীর কথা হল। এখন একটু ব্যক্তিগত কথায় আসি, আপনার পছন্দের কাজ গুলো কি?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আমার পছন্দের কাজ হল যখন কাজ থাকেনা- তখন নিজের মত করে থাকা। যেমন ধরেন মুভি দেখা, আড্ডা মারা, ঘোরা, শপিং করা। যখন আমার ঘড়িতে কোন অ্যালার্ম থাকেনা তখনই আমার পছন্দের সময়।
দি টাইমস ইনফোঃ আপনার পছন্দের খাবার কি?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ পছন্দের খাবার তো অনেক কিছু কিন্তু সব’তো আর খেতে পারিনা। থাই ফুড, চিংড়ি মাছ, স্যুপ আর মায়ের হাতের যে কোন খাবার আমার পছন্দ।
দি টাইমস ইনফোঃ আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আমার কোন ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নেই। তবে এর মানে কিন্তু এইনা যে আমি এইম লেস। হয়ত আজ আছি কাল নাও থাকতে পারি।
দি টাইমস ইনফোঃ প্রত্যেক শিল্পীরই তো একটা সামাজিক দায়বদ্ধতা থাকে, সে ক্ষেত্রে আপনার পরিকল্পনা কি?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আমি যেমন সমাজের কাছে দায়বদ্ধ তেমনি আমার মা বাবার কাছেও। তাই সেখান থেকে বলব আমার যথাসাধ্য চেষ্টা করি দায়বদ্ধতা পুরন করার আমার কাজের দ্বারা।
দি টাইমস ইনফোঃ পরিবার ও নিজেকে কতটা সময় দেন?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আমার পুরোটা সময়ই আমার পরিবারের জন্য। আর তার পর নিজের জন্য। তবে দিতে আর পারি কই, কাজ আর কাজ। আমি কাজ করতে চাই কিন্তু তার ফাঁকে চাই কিছুটা বিশ্রাম।
দি টাইমস ইনফোঃ বিয়ে করছেন কবে?
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ ঐ যে কোন প্লান নেই। যেদিন হবে সেদিন সবাই জানবে।
দি টাইমস ইনফোঃ আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ‘টাইমস টু হ্যালো ’কে সময় দেয়ার জন্য। আপনার জন্য রইল শুভকামনা।
শাবনাজ সাদিয়া ইমিঃ আপনাদেরকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ। শুভকামনা আপনাদেরও।

Share

আরও খবর