১১ এপ্রিল, বিনোদন ডেস্কঃ দেশি ও বিদেশি নাট্যদলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসব ও স্মারক সম্মাননা ২০১৭।’

আজ মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) এ উৎসবের সমাপনী দিন। এদিন মূল হলে প্রদর্শিত হবে নাগরিক নাট্যাঙ্গনের ‘ক্রীতদাসের হাসি।’ এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ হবে মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের আলোচিত প্রযোজনা ‘শিখণ্ডী কথা’। সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে প্রদর্শিত হবে এই দুই নাটক। আয়োজক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

শওকত ওসমানের ‘ক্রীতদাসের হাসি’ উপন্যাস অবলম্বনে নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন হৃদি হক। নির্দেশনায় রয়েছেন লাকী ইনাম।

নাটক প্রসঙ্গে লাকী ইনাম বলেন, ‘উপন্যাসটি মধ্যযুগীয় সামন্ততান্ত্রিক বাগদাদের পটভূমিতে পরাধীন পূর্বপাকিস্তানের নির্যাতিত মানুষের শোষণ-নিপীড়ন আর বঞ্চনার বিরুদ্ধে সতন্ত্র বৈশিষ্টে উজ্জ্বল ব্যতিক্রমী এক রচনা। এখানে লেখক দেখাতে চেয়েছেন পূর্ব পাকিস্তানের সামরিক শাসন পীড়িত বাঙালি সমাজ আর সামন্ততান্ত্রিক বাগদাদ প্রকৃত অর্থে পার্থক্যহীন। কোনো কালে কোনো দেশে কোনো স্বৈরশাসক-শত চেষ্টা করেও মানুষের কণ্ঠ স্তব্ধ করতে পারেনি। ষাটের দশকের সামরিক শাসক আইয়ুব খানের বিরুদ্ধে এই রচনা যেন এক তীব্র প্রতিবাদ। কথা সাহিত্যিক শওকত ওসমান আমৃত্যু লড়াই করেছেন মৌলবাদ, ফতোয়াবাজ, অশিক্ষা-কুশিক্ষা পশ্চাৎপদতার বিরুদ্ধে। বাঙালি জাতীয়তাবাদের চেতনায় উদ্ভাসিত একজন মানুষ ছিলেন তিনি। আমাদের জন্য তিনি রেখে গেছেন এক সাহসী পথের ঠিকানা। পেয়ে গেছেন এই বাংলাদেশের মানুষের অকুণ্ঠ ভালোবাসা।’

তিনি আরো বলেন, ‘শওকত ওসমানের শ্রেষ্ঠ সাহিত্য কর্মের মধ্যে অন্যতম ‘ক্রীতদাসের হাসি’ মঞ্চে নির্দেশনা দেবার সুযোগ পেয়ে আমি এবং আমাদের দল নাগরিক নাট্যাঙ্গন ধন্য। তার শততম জন্মজয়ন্তীতে স্মরণ করছি তার সাথে আমার স্মৃতি বিজড়িত অসাধারণ কিছু মুহূর্ত। কখনো একুশের বইমেলা, কখনো বা কোনো অনুষ্ঠানে দেখা হলে- প্রায়শই উপহার পেতাম একটি করে বই। যাতে তিনি নিজের হাতে তাৎক্ষণিকভাবে লিখে দিতেন ছন্দময় কয়েকটি ছত্র যাতে থাকত- হাস্য রসাত্মক ব্যঞ্জনার সাথে অনিয়ম আর অনাচারের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদের ঝলক।’

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন- হাবিব বাহার, বিশ্বজিৎ ধর/আসিব চৌধুরী, সুতপা বড়ুয়া,হৃদি হক, জুয়েল জহুর/বর্ণ বাদল, কামরুজ্জামান রনি, আসিব চৌধুরি, বর্ণ বাদল, সুমন আহমেদ, শ্রাবনী, মাজেদ/রথি/মোসাদ্দীক শাহীন, শামীম আহমেদ/দীপক সরকার, রফিকুল ইসলাম, শাকিল আহমেদ, সারওয়ার বাপ্পী, পিয়াস হাসান, সাইদুর সুমন, সুব্রত দাস, মোর্শেদ, তৌফিক মুন্সি, ফারহানা নীশা, সুমাইয়া শ্রাবনী, ফারহানা হক দীপ্তি, মনিকা চৌধুরী, আদিবা, কামরুজ্জামান রনি, আসিব চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম।

এদিকে আনন জামানের রচনায় ‘শিখণ্ডি কথা’ নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন ড. রশীদ হারুন। নাটকের গল্প প্রসঙ্গে নির্দেশক ড. রশীদ হারুন জানিয়েছেন, হিজলতলী গ্রামে বাড়ি রমজেদ মোল্লার। তার পরিবারে জন্ম হয় রতন মোল্লার। কিন্তু বয়ঃসন্ধিকালে দেখা যায়, সে অংশত নারী, অংশত পুরুষ। তারপর জীবনের সব স্বাভাবিকতা বিনষ্ট হয়ে জন্মের এক ভীষণ যন্ত্রণা সহস্রমুখো দানবের মতো জীবনের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত তাড়িয়ে বেড়ায় তাকে। তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের সুখ-দুঃখের কথা নিয়ে গড়ে উঠেছে ‘শিখণ্ডী কথা’ নাটকের কাহিনি।

এতে অভিনয় করেছেন-মীর জাহিদ হাসান, আনন জামান, পলি বিশ্বাস, উৎপল চক্রবর্তী, সামিউল জীবন, হাবিবুর রহমান, মো. শাহনেওয়াজ, সৈয়দ ফেরদৌস ইকরাম, কামরুজ্জামান সবুজ, সৈয়দ লুৎফর রহমান, ইকবাল চৌধুরী, বিথুন আহমেদ, সাথী, তৌহিদুর রহমান, সামসুল আলম, রাসেল আহমেদ, রিফাত হোসেন, আসাদুজ্জামান রাফিন, রাজিব হোসেন, কানিজ ফাতেমা, আশরা ও আরাফাত।

মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের একটি গবেষণা নাটক ‘শিখণ্ডী কথা’। ২০০২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর প্রথম মঞ্চে আসে নাটকটি।

১১ এপ্রিল ভাষা সৈনিক, শিক্ষাবিদ, কলামিস্ট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক রেজিস্ট্রার ও পদাতিকের আজীবন সভাপতি প্রয়াত সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইনের ৯৪তম জন্মবার্ষিকী। এ উপলক্ষে ‘সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসব ও স্মারক সম্মাননা ২০১৭’-এর আয়োজন করে পদাতিক নাট্য সংসদ।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে ১২টি নাটক নিয়ে ৭ দিনব্যাপী এই নাট্যোৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। গত ৫ এপ্রিল সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল হলে প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে উদ্বোধন করা হয় এই নাট্যোৎসবের।

Share

আরও খবর