১০ ফেব্রুয়ারি, স্পোর্টস ডেস্কঃ মাগুরা মুক্তিযোদ্ধা আছাদুজ্জামান স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টর ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেড। বৃহস্পতিবার প্রথম সেমিফাইনালে টাইব্রেকারে তারা ৭-৬ গোলের ব্যবধানে শেখ রাসেল স্পোর্টিং ক্লাবকে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠার যোগ্যতা অর্জন করেছে।

খেলার প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে শেষ হয়। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৪ মিনিটে শেখ রাসেলের বিদেশি খেলোয়াড় দাউদা গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। এক গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর শেখ রাসেলের খেলোয়াড়রা আরো উজ্জীবিত হয়ে গতিময় ফুটবল খেলতে থাকেন। তার ফল পায় ১৮ মিনিটে। সংঘবদ্ধ আক্রমণে নাসির শেখ রাসেলের পক্ষে দ্বিতীয় গোল করে দলকে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে নেন। এরপর বিতর্কিত রেফরিং নিয়ে শেখ রাসেলের খেলোয়াড়, কর্মকর্তারা উত্তেজনায় জড়িয়ে পড়েন।

মোহমেডানের এক খেলোয়াড়কে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে মাঠ ছাড়ার দাবিতে মাঠের উত্তেজনা গ্যালারিতে উপস্থিত কমপক্ষে হাজার পাঁচেক দর্শকের মাঝেও ছড়িয়ে পড়ে। এ অবস্থায় ম্যাচের ২০ মিনিটে শেখ রাসেলের ডি বক্সে জটলায় মধ্যে বা পায়ের টোকায় মোহামেডানের পক্ষে সজীব একটি গোল পরিশোধ করেন (২-১)। এ গোলের মাধ্যমে খেলায় ফিরে আসে মোহামেডান। খেলা শেষ হওয়ার ঠিক আগ মুহুর্তে মোহামেডানের অধিনায়ক সবুজ গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান (২-২)।

পরে টাইব্রেকার নামক ভাগ্য পরীক্ষায় ৭-৬ গোলে মোহামেডান জয়ী হয়। সেরা খোলোয়াড় নির্বচিত হন মোহামেডানের অধিনায়ক সবুজ। গোটা খেলায় দুই দলের একাধিক খেলোয়াড়কে হলুদ কার্ড দেখান রেফরি।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহযোগিতায় বসুন্ধরা সিমেন্ট-এর পৃষ্ঠপোষকতায় মাগুরা আছাদুজ্জামান ফুটবল একাডেমি এ টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে।

গত ২০ জানুয়ারি যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়, এমপি এ টুনামেন্টের উদ্বোধন করেন। দেশসেরা ১২টি ফুটবল দল এ টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছে।

Share

আরও খবর