২ নভেম্বর, অনলাইন ডেস্কঃ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে আর্থিক ও কূটনৈতিক সহায়তার কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। রাজধানীতে গতকাল মার্কিন একটি প্রতিনিধি দল পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে বৈঠকে এ কথা জানায়।

দলটির নেতৃত্ব দেন ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি (ডিআরএল) স্কট বাসবি। অন্যদিকে, সব ধরনের সহায়তা অব্যাহত রাখবে ইইউ। সফররত ইউরোপীয় ইউনিয়নের মানবিক সহায়তা ও সংকট ব্যবস্থাপনাবিষয়ক কমিশনার ক্রিসতোস্ত স্তিলিয়ানিদেস এ কথা জানিয়েছেন। তিনি সংকটের সমাধানে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সংলাপের ওপর জোর দিয়েছেন। গতকাল রাজধানীতে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক শেষে বিফ্রিংয়ে তিনি এ কথা বলেন। ব্রিফিংয়ে ক্রিসতোস্ত বলেন, ‘রোহিঙ্গা সমস্যার ব্যাপারে আমি রাজনৈতিক সমাধানের ওপরই বেশি জোর দেব। ইউরোপীয় ইউনিয়ন বেশ ভালোভাবেই অবগত আছে রোহিঙ্গা সমস্যার উৎস মিয়ানমারে। আমি মনে করি বাংলাদেশ ও মিয়ানমারকে সংলাপ চালিয়ে যাওয়া উচিত। এই ডায়ালগের ব্যাপারে আমি অনেক কিছু জেনেছি বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে এবং আমি সেটার সঙ্গে একমত পোষণ করি। ’ ইইউ কমিশনার বলেন, ‘আমি আশা করি রোহিঙ্গারা তাদের নিজেদের দেশে নিরাপদে এবং সম্মানের সঙ্গে ফিরে যেতে পারবে। আমি প্রতিজ্ঞা করছি ইউরোপীয় ইউনিয়ন রোহিঙ্গা সংকটে সব ধরনের সহায়তা দিয়ে যাবে, যত দিন এর সমাধান না হচ্ছে। ’ রোহিঙ্গা সংকট বর্তমান সময়ে তার দেখা সবচেয়ে জটিল ও অমানবিক বলে মন্তব্য করেন ক্রিসতোস্ত।

Share

আরও খবর