১০ এপ্রিল, ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ মিশরে তানতা ও আলেকজান্দ্রিয়ায় গির্জায় বোমা বিস্ফোরণে ৪৪ জন নিহত হওয়ার পর দেশটিতে তিন মাসের জন্য জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আবদুল ফাত্তাহ আল সিসি।

তবে প্রেসিডেন্টের এ পদক্ষেপের জন্য পার্লামেন্টে অনুমোদন প্রয়োজন হবে। যদিও পার্লামেন্টে প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা তার রয়েছে।

এর আগে গির্জায় হামলার পর প্রথমে সারা দেশে গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামোগুলোর সুরক্ষার জন্য সেনা মোতায়েনের আদেশ দেন প্রেসিডেন্ট।

এদিকে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের ‘পাম সানডে’র অনুষ্ঠান চলাকালে গির্জায় হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

রোববার মিশরে দুটি গির্জায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ৪৪ জন নিহত হওয়ার পাশাপাশি শতাধিক মানুষ আহত হয়।

মিশরের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বোমা হামলায় তান্তা শহরে নিহত হয়েছেন ২৭ জন। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৭৮ জন। অন্যদিকে, আলেকজান্দ্রিয়ায় নিহত হয়েছেন ১৭ জন। আহত হয়েছেন ৪০ জন।

বোমা হামলার পর ওইদিনই জাতীয় প্রতিরক্ষা কাউন্সিলের জরুরি বৈঠক ডাকেন প্রেসিডেন্ট সিসি। প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে বৈঠকের পর জরুরি অবস্থা জারির কথা ঘোষণা করেন তিনি।

জরুরি অবস্থা ঘোষণার ফলে এখন দেশটিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিনা পরোয়ানায় কাউকে আটক করতে পারবে এবং বাসাবাড়িতে তল্লাশি চালাতে পারবে।

Share

আরও খবর