১৯ এপ্রিল, ডেস্ক রিপোর্টঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ-ভুটান-ভারত-নেপাল (বিবিআইএন) এর মধ্যে সম্পাদিত মোটরযান চুক্তির অনুস্বাক্ষর প্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য ভুটানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, এই চুক্তি সম্পাদনের উদ্যোগ ভুটানের জলবায়ুসংক্রান্ত সমস্যার সঙ্গে সংগতিপূর্ণ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জিয়ালিয়ং তোসখাঙ্গ এর রয়্যাল ব্যাংকুয়েট হলে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী দাসো থেসারিং তোবগের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এ কথা বলেন।

বৈঠকের পর পররাষ্ট্রসচিব মো. শহীদুল হক এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানের প্রেক্ষিতে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী তোবগে বলেন, তার দেশও বিবিআইএন প্রক্রিয়ার সঙ্গে একাত্ম এবং এই বিবিআইএন যোগাযোগ কার্যকরভাবে সম্পন্ন হলে তা কীভাবে জলবায়ু সমস্যার সমাধানে কার্যকরী হয় তারই প্রতীক্ষায় রয়েছেন।

তিনি বলেন, ভুটান বিবিআইএনের বিষয়টি এর চেতনা থেকেই দেখছে এবং এটি সম্পন্ন হলে কীভাবে জলবায়ু সমস্যার মোকাবিলা করা যায় তারই প্রতীক্ষায় রয়েছে।

পর্যটন বিষয়ে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী থেসারিং তোবগে বলেন, কীভাবে বাংলাদেশের কক্সবাজার এবং কুয়াকাটাকে কেন্দ্র করে একটি পর্যটন করিডোর প্রতিষ্ঠা করা যায় যাতে করে এর সম্ভবনাগুলোকে আরো কাজে লাগানো সম্ভব হয়, সেজন্য ভুটান বাংলাদেশে একটি প্রতিনিধি দল পাঠাতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় তার সরকারের উদ্যোগে ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস হিসেবে ঘোষণার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলের স্বীকৃতির জন্য ভুটানের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

এদিকে, মঙ্গলবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভুটানের রাজা জিগমে খেসার ন্যামগিল ওয়াংচুক এবং রানি জেটসুন পেম রাজ প্রাসাদ তাশিহোডজংয়ে বর্ণাঢ্য সংবর্ধনা প্রদান করেন।

শেখ হাসিনা রাজপ্রাসাদের প্রধান ফটকে পৌঁছলে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে অভ্যর্থনা জানানো হয়। পরে তাকে ভুটানের একজন মন্ত্রী ও সিনিয়র কর্মকর্তারা প্রাসাদের ভেতরে নিয়ে যান। এখানে তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

পরে প্রধানমন্ত্রী ভুটানের রাজা ও রানির সঙ্গে দর্শকদের সামনে উপস্থিত হন।

পররাষ্ট্রসচিব এম শহীদুল হক ও প্রেসসচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের জানান, প্রধানমন্ত্রী ভুটানের রাজা ও রানির সঙ্গে কিছু সময় একান্তে কাটান।

শহীদুল হক বলেন, রাজা প্রথমবারের মতো তার ১৪ মাস বয়সি শিশুকে প্রধানমন্ত্রীকে দেখান এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তার পুত্রের ‘দাদি’ বলে উল্লেখ করেন। এ সময় সায়মা ওয়াজেদ হোসেন, শেখ রেহানার পুত্র রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি এবং তার স্ত্রী ও সন্তানরা উপস্থিত ছিলেন।

Share

আরও খবর