১৬ ডিসেম্বর, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মহান বিজয় দিবসে জাতীয় প্যারেড ময়দানে কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দর জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত বাহিনীর বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজে অভিবাদন মঞ্চে আসেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং তিন বাহিনীর প্রধান রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান।

১০টা ৩৫ মিনিট থেকে ১০টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত খোলা জিপে চড়ে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন রাষ্ট্রপতি। ১০টা ৫০ মিনিটে কুচকাওয়াজের অধিনায়ক রাষ্ট্রপতির কাছে কুচকাওয়াজ শেষ করার অনুমতি চান।

শুরু হয় সালাম গ্রহণ পর্ব। ১০টা ৫৮ মিনিটে কুচকাওয়াজের অধিনায়ক মেজর জেনারেল আকবর হোসেন রাষ্ট্রপতিকে সালাম জানান। এরপর সালাম জানান কুচকাওয়োজের উপঅধিনায়ক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. হুসেইন আল মোর্শেদ। তার সঙ্গে ছিলেন মেজর রাজীব ও মেজর সফি। সালাম জানানোর সময় অভিবাদন মঞ্চে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ছিলেন তিন বাহিনীর প্রধান। কুচকাওয়াজে অংশ নেওয়া সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী, বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব, কোস্ট গার্ড, বিএনসিসি, আনসার-ভিডিপি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যদের পর্যায়ক্রমে সালাম গ্রহণ করেন রাষ্ট্রপতি।

এ ছাড়া বিভিন্ন দৃষ্টিনন্দন যান্ত্রিক প্রদর্শনী বাহন নিয়ে আসেন সালাম জানাতে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, বিদ্যুৎ-জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়, বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়, মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রণালয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়, ধর্মবিষয়য়ক মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়, ভূমি মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় তাদের মন্ত্রণালয় কেদ্রীক যান্ত্রিক প্রদর্শনী বাহন নিয়ে সালাম জানাতে আসে। কোন কোন মন্ত্রণালয় যান্ত্রিক নৌকায় তাদের প্রদর্শনী নিয়ে আসেন। দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলে সালাম জানানো পর্ব।

প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, সংসদ সদস্য, সচিব, সশস্ত্র বাহিনীর কর্মকর্তা, বিদেশি রাষ্ট্রদূতসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার কয়েক হাজার মানুষ কুচকাওয়াজ উপভোগ করেন।

কুচকাওয়াজের অধিনায়ক ছিলেন সেনাবাহিনীর আয়োজন করে সেনাবাহিনী নবম পদাতিক ডিভিশনের। জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) মেজর জেনারেল আকবর হোসেন।

অনুষ্ঠানে কন্টিনজেন্ট, সশস্ত্র বাহিনী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিভিন্ন শাখা ও সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের অগ্রগতির তথ্য জানানো হয়।

এর আগে সকালে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Share

আরও খবর