২৮ ডিসেম্বর, বিনোদন ডেস্কঃ আর কদিন পরই সূর্যটা ডুবে যাবে, হারিয়ে যাবে ২০১৬ সাল। তবে বছরজুড়ে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনার স্মৃতি শুধু ঘুরপাক খাবে স্মৃতির খামারে।

অন্যান্য অঙ্গনের মতো থিয়েটার অঙ্গনেও ঘটেছে অনেক ঘটনা। এসেছে নতুন নাটক। গত বছর মঞ্চে আসা আলোচিত নতুন ১৩ নাটক নিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রতিবেদন।

সুবচনের ‘প্রণয় যমুনা’
গত ২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় সুবচন নাট্য সংসদের নতুন নাটক ‘প্রণয় যমুনা’র উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘রাধাকৃষ্ণ’ উপন্যাস অবলম্বনে নাট্যরূপ দিয়েছেন আসাদুল ইসলাম। নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন সুদীপ চক্রবর্তী। এটি সুবচনের ৩৭তম প্রযোজনা।

বাতিঘরের ‘অলিখিত উপাখ্যান’
এ বছর আরো একটি নতুন নাটক মঞ্চে এনে দর্শকদের চমক দিয়েছে ঢাকার মঞ্চের নবাগত নাট্যদল বাতিঘর। গত ১৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মঞ্চে নাটকটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়।

জনপ্রিয় ঔপন্যাসিক রিজিয়া রহমানের উপন্যাসকে উপজীব্য করে অলিখিত উপাখ্যান উপন্যাসকে গবেষণার ভিত্তিতে নাট্যরূপ এবং নির্দেশনা দিয়েছেন মুক্তনীল। নাট্যব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর প্রথম এই নাটকে কথকের ভূমিকায় কণ্ঠ দিয়েছেন। এটি নাট্যদল বাতিঘরের দ্বিতীয় প্রযোজনা। অলিখিত উপাখ্যানে উঠে এসেছে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের অজানা এক দৃশ্যপট।

যশোরের ‘মাতব্রিং’
খুলনা বিভাগের ঐতিহ্যবাহী নাট্য সংগঠন বিবর্তন যশোরের নতুন প্রযোজনা ‘মাতব্রিং’। এ বছর ৯ সেপ্টেম্বর যশোর শিল্পকলা একাডেমিতে নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়। এটি বিবর্তনের ১৪তম মঞ্চনাটক।

‘মাতব্রিং’ নাটকটি রচনা করেছেন সাধনা আহমেদ। নির্দেশনায় রয়েছেন জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যতত্ত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান ইউসুফ হাসান অর্ক।

বটতলার ‘ক্রাচের কর্নেল’
কথাসাহিত্যিক শাহাদুজ্জামানের আলোচিত উপন্যাস ‘ক্রাচের কর্নেল’ অবলম্বনে দেশের প্রথম সারির নাটকের দল বটতলা চলতি বছর মঞ্চে নিয়ে আসে তাদের নতুন নাটক ‘ক্রাচের কর্নেল’। গত ১ ডিসেম্বর ‘বটতলা রঙ্গমেলা ২০১৬’র উদ্ধোধনী সন্ধ্যায় নাটকটির প্রথম মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়। নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন সৌম্য সরকার ও সামিনা লুৎফা নিত্রা। নির্দেশনায় মোহাম্মদ আলী হায়দার। কর্নেল তাহের সম্পর্কে অজানা কথাগুলো এ নাটকের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।

প্রাঙ্গণেমোরের ‘আমি ও রবীন্দ্রনাথ’
বাংলাদেশে দলীয় পর্যায়ে রবীন্দ্রনাথের নাটকের নিয়মিত চর্চার প্রথম প্রয়াস ‘প্রাঙ্গণেমোর’। এই নাট্যদলের কার্যক্রম বাংলাদেশে নিয়মিত রবীন্দ্র নাট্যচর্চার ক্ষেত্রে নূতন প্রাণ সঞ্চার করেছে এ কথা আজ বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গণে স্বীকৃত। রবীন্দ্র নাট্যচর্চার সাফল্যের ধারাবাহিকতায় প্রাঙ্গণেমোর নাট্যদল এ বছর মঞ্চে নিয়ে আসে ‘আমি ও রবীন্দ্রনাথ’নাটকটি।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটার হলে নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন নূনা আফরোজ। ‘আমি ও রবীন্দ্রনাথ’ নাটকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ব্যক্তিগতজীবনের নানা দিক ও তার সৃজনশীলতা একজন গুণমুগ্ধ ভক্ত পাঠকের কল্পনায় তুলে ধরা হয়েছে।

আরণ্যকের ‘দি জুবলী হোটেল’
দেশের প্রথম সারির নাটকের দল আরণ্যক। এ বছর ‘দি জুবলী হোটেল’ শিরোনামের নতুন একটি নাটক মঞ্চে এনছে দলটি। ৯ নভেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল হলে উদ্বোধনী প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় নাটকটির। এটি আরণ্যকের ৫৭তম প্রযোজনা। নাটকটির রচনা ও নির্দেশনায় রয়েছেন মান্নান হীরা।

নাটকটির গল্পে সমসাময়িক ঘটনা ও শ্রমজীবি মানুষের বেঁচে থাকার সংগ্রাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য, যা আরণ্যকের পূর্ববর্তী নাটকগুলোতে (রাঢ়াং, সপ্নপথিক, সংক্রান্তি, ইবলিশ, ওরা কদম আলী, আগুনের ডালপালা, আগুনের জবানবন্দি, মূর্খ লোকের মূর্খ কথা) ছিল।

মণিপুরী থিয়েটারের ‘লেইমা’
তিন বছর পর মঞ্চে নতুন নাটক এনেছে মণিপুরি থিয়েটার। ফেদেরিকো গারসিয়া লোরকার ইয়ের্মা অবলম্বনে রচিত নাটকটির নাম ‘লেইমা’। গত ১০ এপ্রিল মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ থানার ঘোড়ামারা গ্রামে মণিপুরী থিয়েটারের নটমণ্ডপে ‘লেইমা’র উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয়। বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরীতে এর ভাষান্তর ও নির্দেশনা দিয়েছেন শুভাশিস সিনহা।

সাধনার ‘কালচৌতিশা’
উপমহাদেশীয় সংস্কৃতি প্রসার কেন্দ্র সাধনার সম্প্রতি মঞ্চে নিয়ে এসেছে ছন্দ ভাষার নাটক ‘কালচৌতিশা’। গত ২০ ডিসেম্বর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় এর উদ্বোধনী মঞ্চায়ন হয়। নৃত্যশিল্পী লুবনা মারিয়ামের শিল্প নির্দেশনায় সাতটি দৃশ্যে বিভক্ত এ নাটকের প্রধান দুই চরিত্র আবাবিল ও চর্যার ভ. মিকায় অভিনয় করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আশিক রহমান লিয়ন ও প্রভাষক কাজী তামান্না হক সিগমা। নাটকটি লিখেছেন একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাহমান মৈশান। নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থী রিয়াজ মাহমুদ।

নাট্যমের অপেরা নাটক ‘ডৌল: জুলেখার জেরা পর্ব’
গত ২৯ মার্চ শিল্পকলা একাডেমিরর এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয় নাট্যম রিপোর্টরীর নতুন নাটক ‘ডৌল: জুলেখার জেরা পর্ব’। এটি নাট্যমের চতুর্থ প্রযোজনা। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন চয়ন খায়রুল হাবিব। এটি বাংলাদেশের প্রথম অপেরা নাটক। জুলেখা একজন লেখিকা। ‘নারী সকল আদি পাপের উৎস’ এই ধারণা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইহুদি ধর্মের প্রবক্তাগণ জুলেখাকে খলনায়িকা হিসেবে প্রমাণ করতে চেয়েছিলেন। এ কারণে তাকে ধরে এনে রিমান্ডের মতো করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ জিজ্ঞাসাবাদের মধ্য দিয়ে পুরুষশাসিত সমাজে নারীর নিগৃহীত অবস্থা এই নাটকেরে মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।

ভাস্কর নভেরা আহমেদের জীবনী ভিত্তিক নাটক ‘নভেরা’
গত ১৩ মে নাটক সরণির মহিলা সমিতিতে উদ্বোধনী মঞ্চায়ন হয় ভাস্কর নভেরা আহমেদের জীবনী অবলম্বনে নির্মিত নাটক ‘নভেরা’। এটি ধ্রুপদী অ্যাক্টিং অ্যান্ড ডিজাইন স্কুলের প্রথম প্রযোজনা। হাসনাত আবদুল হাইয়ের উপন্যাস ‘নভেরা’ অবলম্বনে নাটকটি লিখেছেন ঢাকা থিয়েটারের নাট্যকর্মী এবং ধ্রুপদী অ্যাক্টিং অ্যান্ড ডিজাইন স্কুলের পরিচালক সামিউন জাহান দোলা এবং নির্দেশনা দিয়েছেন সাজ্জাদ রাজীব। নাটকটিতে একক অভিনয়ও করেছেন সামিউন জাহান দোলা। নাটকের প্রেক্ষাপট ১৯৪৫ সাল থেকে নভেরার মৃত্যু পর্যন্ত।

‘থিয়েটার ৫২’র ‘নননপুরের মেলায় একজন কমলাসুন্দরী ও একটি বাঘ আসে’
গত ৬ অক্টোবর ঢাকার মঞ্চে আত্মপ্রকাশ ঘটে নতুন নাটকের দল ‘থিয়েটার ৫২’র। রিপার্টরীর আদলে গড়া তারুণ্য নির্ভর এই নাটকের দলটি গত ৬ অক্টোবর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ করে তাদের প্রথম প্রযোজনা ‘নননপুরের মেলায় একজন কমলাসুন্দরী ও একটি বাঘ আসে’।

বাংলার মিথ ও বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের মিথষ্কিয়া ঘটেছে এই নাটকে। নাটকটি একটি যুদ্ধশিশুকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হলেও এর প্রতিটি চরিত্রই এই বাংলার সাধারণ গ্রামীণ মানুষের প্রতিনিধিত্ব করে।

পদাতিক নাট্য সংসদের ‘গহনযাত্রা’
এ বছর ঢাকার মঞ্চে আরো একটি নতুন নাটক নিয়ে আসে পদাতিক নাট্য সংসদ। গহন যাত্রা শিরোনামের নাটকটি পদাতিকের ৩৯তম প্রযোজনা। গত ১১ জুলাই শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটারে নাটকটির প্রথম মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়। রুবাইয়াৎ আহমেদের রচনায় এটি নির্দেশনা দিয়েছেন সুদীপ চক্রবর্তী। নাটকটিতে একক অভিনয় করেছেন শামছি আরা সায়েকা।

বুয়েট ড্রামা সোসাইটির ‘লেটার টু এ চাইল্ড নেভার বর্ন’
গত ৭ নভেম্বর জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয় বুয়েট ড্রামা সোসাইটির নতুন নাটক ‘লেটার টু এ চাইল্ড নেভার বর্ন’শিরোনামের নাটকটি।

এটি বুয়েট ড্রামা সোসাইটির ১৪তম প্র্রযোজনা। ওরিয়ানা ফাল্লাচির বিশ্ববিখ্যাত উপন্যাসটির নাট্যরূপ দিয়েছেন শাহেদ ইকবাল এবং নির্দেশনা দিয়েছেন বাকার বকুল।

ওরিয়ানা ফাল্লাচির বিখ্যাত এই উপন্যাসটি এর আগে মঞ্চে আনা হয়নি। এই নাটকটির মাধ্যমে মঞ্চে দীর্ঘদিন পর ইংরেজি ভাষায় নাটক মঞ্চস্থ হয়। এছাড়াও নাটকটি এ বছর ভারতের হরিয়ানার ওপি জিন্দাল গ্লোবাল ইউনিভার্সিটির বার্ষিক সাংস্কৃতিক উৎসবে রানারআপ হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

Share

আরও খবর