২০ এপ্রিল, ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মের আগাম সাধারণ নির্বাচন আয়োজনের ঘোষণা অনুমোদন করেছে পার্লামেন্ট।

ফলে ৮ জুনই হবে এই নির্বাচন। নির্বাচনে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে দলগুলো।

বুধবার যুক্তরাজ্যের হাউস অব কমন্সে এ নিয়ে ভোটাভুটি হয়। আগাম নির্বাচনের পক্ষে পড়েছে ৫২২টি ভোট এবং বিপক্ষে পড়েছে মাত্র ১৩টি। লেবার পার্টি ও লিব ডেম পার্টি সমর্থন দেওয়ায় অনুমোদনের জন্য প্রয়োজনীয় দুই-তৃতীয়াংশের অনেক বেশি ভোট পড়েছে থেরেসা মের আগাম নির্বাচনের পক্ষে।

প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন, জনগণের নতুন ম্যান্ডেট ব্রেক্সিট আলোচনায় তার হাতকে আরো শক্তিশালী করবে এবং ভবিষ্যতে স্থিতিশীলতা নিশ্চিত হবে।

লেবার পার্টির বিরোধী নেতা জেরেমি কর্বিন আগাম নির্বাচনকে স্বাগত জানিয়েছেন। তবে মত পরিবর্তন করায় ও প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে ব্যর্থ হওয়ায় থেরেসা মের সমালোচনা করেন তিনি।

পরবর্তী সাধারণ নির্বাচন হওয়ার কথা ২০২০ সালে। কিন্তু যুক্তরাজ্যের সাংবিধানিক ধারা ‘ফিক্সড টার্ম পার্লামেন্টস অ্যাক্ট’ নির্ধারিত সময়ের আগে নতুন নির্বাচন আয়োজন অনুমোদন করে, যদি কিনা তাতে সংসদ সদস্যদের দুই-তৃতীয়াংশের মত থাকে।

সংসদ সদস্যদের উদ্দেশে থেরেসা মে বলেন, ব্রেক্সিট আলোচনা শুরুর আগে নতুন নির্বাচন আয়োজনের সুযোগ রয়েছে। তা ছাড়া বেক্সিট আলোচনায় সফল হওয়ার জন্য শক্তিশালী নেতৃত্বের প্রয়োজন রয়েছে।

হাউস অব কমন্সে ভোটাভুটির মধ্যেই নতুন নির্বাচন নিয়ে প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছেন নেতারা। লেবার পার্টি এ নির্বাচনে জয়ের জন্য মরিয়া হয়ে লড়বে। কিন্তু রক্ষণশীল টরি পার্টির যে জনপ্রিয়তা রয়েছে, তা ধরে রেখেই নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চান থেরেসা মে।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন।

Share

আরও খবর