৩০ জানুয়ারি, স্পোর্টস ডেস্কঃ জাপান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (জেএফএ) ব্যবস্থাপনায় জাপানের ওসাকা শহরে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল দুইদিন ব্যাপী ‘জে-গ্রিন সাকাই লেডিস ফেস্টিভাল অনূর্ধ্ব-১৫’ ফুটবল ফেস্টিভাল।

আজ রোববার ফেস্টিভালের শেষ দিনে তিনটি ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের মেয়েরা। তার ২টিতে জয় পেয়েছে। অন্যটিতে টাইব্রেকারে হেরেছে বাংলাদেশ।

‘ডি’ গ্রুপে গতকাল সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে আমাগাসাকি লেডিস টিমের বিপক্ষে মাঠে নামে বাংলাদেশের মেয়েরা। ম্যাচে ৪-০ গোলের ব্যবধানে আমাগাসাকি লেডিস টিমকে হারায় কৃষ্ণা-স্বপ্নারা। বাংলাদেশের পক্ষে স্বপ্না দুটি গোল করেন (১২ ও ১৬ মিনিটে)। ১৯ মিনিটে শ্রীমতি কৃষ্ণা রানী সরকার ও ৩৪ মিনিটে মার্জিয়া গোল করেন।

এরপর দুপুর ১২.৪৫টায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ দল মুখোমুখি হয় থাইল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৬ দলের বিপক্ষে। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলের সমতা নিয়ে শেষ হয়। ম্যাচের ১১ মিনিটের সময় বাংলাদেশের সিরাত জাহান স্বপ্না বাংলাদেশের পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন। আর ১৫ মিনিটের মাথায় থাইল্যান্ডের চাইসিওলা পেনপিটচা গোল করে ম্যাচে সমতা ফেরান। এই সমতা আর না ভাঙলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে বাংলাদেশ দল ৪-২ গোলে হেরে যায়।

বেলা ২.২৫টায় দিনের শেষ ম্যাচে টোকাই উইনিভার্সিটি সোইয়ো দলের বিপক্ষে মাঠে নামে বাংলাদেশের কিশোরীরা। জে গ্রিন সাকাই একাডেমির মাঠে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে বাংলাদেশ দল ৪-০ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করে। এই ম্যাচেও স্বপ্ন জোড়া গোল করেন। একটি করে গোল করেন আঁখি খাতুন ও শিউলি আজিম। ম্যাচের ১০ মিনিট আঁখি ও ১১ মিনিটে শিউলি গোল করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়। এরপর ১৮ ও ৪০ মিনিটে জোড়া গোল করেন স্বপ্না। তাতে ৪-০ ব্যবধানে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত হয়।

আগের দিন শনিবার বাংলাদেশ দল ৩টি ম্যাচ খেলেছিল। তার ১টি ম্যাচে জয় পায়, ১টিতে ড্র করে ও ১টিতে হেরে যায়। প্রস্তুতি ম্যাচসহ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ দল মোট সাতটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পায়। তার মধ্যে জয় চারটিতে, হার দুটিতে এবং ড্র একটিতে।

এই ফেস্টিভালে জাপানের ১৮টি দলের সঙ্গে অংশ নেয় বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৬ দল। মোট ২০টি দলকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই ফেস্টিভাল। প্রতিটি ম্যাচ হয় ৪০ মিনিট করে। প্রথমার্ধে ২০ মিনিট, দ্বিতীয়ার্ধে ২০ মিনিট। মাঝে ৫ মিনিটের বিরতি থাকে।

Share

আরও খবর