৮ জানুয়ারি, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দেশের ইতিহাসে এ যাবৎকালের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। সোমবার সকালে সেখানে তাপমাত্রা ছিল মাত্র ২.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মিজানুর রহমান জানান, বাংলাদেশে এর আগে এত কম তাপমাত্রার কোনো রেকর্ড নেই। এর আগে ১৯৬৮ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ২ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

নীলফামারীর সৈয়দপুর ও ডিমলায় সোমবার সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ২.৯ ও ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ সময় দিনাজপুরে তাপমাত্রা ছিল ৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে বলা হয়, শৈত্যপ্রবাহ এখনো পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ছে। তবে দুই/একদিনের মধ্যে কমতে শুরু করবে।

এদিকে, গত কয়েকদিনের তীব্র শৈত্যপ্রবাহে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। দেশের উত্তরাঞ্চলের মানুষ রয়েছে সবচেয়ে কষ্টে। শৈত্যপ্রবাহ সেখানে জেঁকে বসেছে। তীব্র শীতে পঞ্চগড়, লালমনিরহাট, নীলফামারী, গাইবান্ধা, কুড়িগ্রাম, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, রাজশাহী, রংপুরে অবর্ণনীয় কষ্টের মধ্যে আছে মানুষ। ইতোমধ্যে ঠান্ডা ও ঠান্ডাজনিত রোগে কয়েকজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

এসব অঞ্চলে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া সকালের দিকে ঘর থেকে বের হচ্ছে না মানুষ। বেলা ১১টা পর্যন্ত রাস্তা-ঘাট ফাঁকাই দেখা যাচ্ছে। স্কুল-কলেজেও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে গেছে। ঘন কুয়াশার কারণে মহাসড়কে দিনের বেলাতেও হেডলাইট জ্বালিয়ে ধীরগতিতে চলছে যানবাহন। জনজীবনে এক ধরনের স্থবিরতা দেখা দিয়েছে।

Share

আরও খবর