১৪ জানুয়ারি, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ এবার পৌষ মাসের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত শীতের তেমন তীব্রতা ছিল না। তবে পৌষের শেষের দিকে তাপমাত্রা কমতে থাকে।

১৪ জানুয়ারি শনিবার থেকে শুরু হয়েছে মাঘ মাস। সে সঙ্গে বেড়েছে শীতের তীব্রতাও। শৈত্য প্রবাহের কারণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। শনিবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয় ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ঢাকার আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয় বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাংশ পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। যে কারণে দেশজুড়ে এখন শৈত্যপ্রবাহ চলছে।

শনিবার ঢাকায় তাপমাত্রা ১১ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এদিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল কুড়িগ্রামের রাজারহাট ও পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ ছাড়া সিলেটের শ্রীমঙ্গলে তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৭ ডিগ্রি, চুয়াডাঙ্গায় ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি এবং বরিশালের ভোলায় ৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর আরো জানিয়েছে, টাঙ্গাইল, চুয়াডাঙ্গা, শ্রীমঙ্গল, রাজশাহী, দিনাজপুর, পাবনা, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী ও পঞ্চগড় অঞ্চলে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলেছে।

এ ছাড়া বরিশাল বিভাগ এবং ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, সীতাকুণ্ড, রাঙামাটি, কুমিল্লা, ফেনী, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, রংপুর, খুলনা, সাতক্ষীরা, কুষ্টিয়া ও যশোর অঞ্চলে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ চলছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

Share

আরও খবর