১৯ মার্চ, ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে প্রায় ৩০ হাজার কুর্দি। কুর্দি নতুন বছর উদযাপন উপলক্ষে জার্মানির বিভিন্ন অঞ্চল থেকে শনিবার এসব বিক্ষোভকারী ফ্রাঙ্কফুর্টে জমায়েত হয়েছিল।

বিক্ষোভকারীরা তুরস্কে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা এবং আগামী মাসে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার পরিধি বাড়ানোর বিষয়ে যে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে তাতে ‘না’ ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। অনেক বিক্ষোভকারী তুরস্কে নিষিদ্ধঘোষিত কুর্দি সংগঠন পিকেকে এর মনোগ্রাম অংকিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে এসেছিল।

তুরস্ক কুর্দিদের এই সমাবেশকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে মন্তব্য করেছে। এছাড়া সমাবেশের অনুমতি দেওয়ায় জার্মানিকে ‘ভন্ড’ বলে আখ্যা দিয়েছে।

এরদোয়ানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন বলেছেন, ‘ যেখানে তুর্কি মন্ত্রী ও আইনপ্রণেতাদের তাদের নিজেদের নাগরিকদের জন্য আয়োজিত সমাবেশে বাধা দেওয়া হয়েছে সেখানে পিকেকের প্রতীক ও স্লোগান অপ্রত্যাশিত।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আবারও ইউরোপীয় দেশগুলোকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, ১৬ এপ্রিল তুর্কি জনগণই সিদ্ধান্ত নেবে, ইউরোপ নয়।’

প্রসঙ্গত, এরদোয়ানের ক্ষমতা আরও বাড়াতে ১৬ এপ্রিল সংবিধান সংশোধন নিয়ে তুরস্কে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। এই গণভোটের পক্ষে প্রচারের জন্য গত সপ্তাহে নেদারল্যান্ডসের রটারডাম শহরে পুলিশ তুরস্কের দুই মন্ত্রীকে সমাবেশ করতে দেয়নি। এছাড়া জার্মানিতে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের সমাবেশ করার কথা থাকলেও বার্লিনের আপত্তির কারণে সেই সমাবেশ বাতিল করা হয়।

Share

আরও খবর