৯ নভেম্বর, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নে যৌতুক না দেওয়ায় আঁখি (২০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে।

বুধবার রাত ১০টায় চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে নিহত গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে চাটখিল থানা পুলিশ। সন্ধ্যা ৭টার দিকে নোয়াখলা ইউনিয়নের কড়িহাটি গ্রামে ওই গৃহবধূর স্বামীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আঁখি উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের যশোড়া গ্রামের ইউসুফ মিয়ার মেয়ে ও একই ইউনিয়নের কড়িহাটি গ্রামের মানিক হোসেনের স্ত্রী।

আঁখির বড় বোন লাকী ও খালা আয়েশা বেগম জানান, গত তিন মাস আগে কড়িহাটি গ্রামের মানিক হোসেনের সঙ্গে আঁখির বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী মানিক ও তার পরিবারের লোকজন বিভিন্ন সময় আঁখিকে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা নিয়ে আসার জন্য চাপ দিতে থাকে। এতে আঁখি অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে তার স্বামী মানিক ও শাশুড়ি প্রায়ই মারধর করতেন।

তারা আরো জানা, বুধবার সন্ধ্যায় পুনরায় আঁখির স্বামী ও শাশুড়ি যৌতুকের জন্য আঁখিকে বেদম মারধর করলে গুরুতর আহত হন। পরে তারা আঁখিকে চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এরপর মৃতদেহ ফেলে তার স্বামী ও শাশুড়ি পালিয়ে যান। পরে স্বজনেরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশকে খবর দিলে চাটখিল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানা নিয়ে যায়। স্বজনদের লিখিত অভিযোগ দিতে বলেছে পুলিশ।

চাটখিল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জহিরুল আনোয়ার জানান, খবর পেয়ে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের পরিবারকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share

আরও খবর