২০ এপ্রিল, স্পোর্টস ডেস্কঃ চিরচেনা ক্যাম্প ন্যুতে আরও একটি নাটকের মঞ্চায়ন করতে পারল না বার্সেলোনা। জুভেন্টাসের দুরভেদ্য রক্ষণে চিড় ধরাতে পারেনি তারা। পুরো ম্যাচে গোলের জন্য হাহাকার শেষে গোলশূন্য ড্রয়ে হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাদের। আর দুই লেগ মিলে ৩-০ ব্যবধানের হারে এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগকে বিদায় বলতে হয়েছে মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের।

এর আগে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের বিপক্ষে ম্যাচটিকে বড় শিক্ষা হিসেবেই নিয়েছিল জুভেন্টাস। আর তাতেই সফল ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির দলটি। নিজেদের রক্ষণে ইস্পাত কঠিন বাঁধ তৈরি করে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনাকে রুখে দিয়েছে তারা। সব ম্যাচেই যে অলৌকিক কিছু ঘটানো সম্ভব নয় সেটা প্রমাণ হলো আরও একবার।

মূলত এক সপ্তাহ আগে তুরিনোর মাঠে ৩-০ ব্যবধানে হেরেই বিদায় ঘন্টা অনেকটা বেজে উঠেছিল বার্সার। বাকি ছিল ঘরের মাঠের আনুষ্ঠানিকতার। ক্যাম্প ন্যুতে গতকাল রাতেই সেই আনুষ্ঠানিকতা শেষ হল।

বার্সেলোনাকে ম্যাচটি জিততে হতো ৪ গোলের ব্যবধানে। পিএসজির সঙ্গে দ্বিতীয় রাউন্ডের প্রথম লেগে ৪-০ গোলে হারলেও দ্বিতীয় লেগে ৬-১ গোলে জিতে মেসিরা অলৌকিকভাবেই শেষ আটে জায়গা করে নিয়েছিল। পিএসজি সেদিন যে ভুলগুলো করেছিল, গতকাল রাতে জুভেন্টাস সেই ভুলগুলো এড়িয়েই বার্সাকে ছিটকে ফেলে দিল।

তবে গোল না পেলেও ঘরের মাঠে দুর্দান্তই খেলেছে বার্সা। আক্রমণের পর আক্রমণ করে জুভেন্টাসের রক্ষণভাগকে ব্যতিব্যস্তই রেখেছিল তারা। কিন্তু জর্জো চিয়েল্লিনি, দানি আলভেজ, লিওনার্দো বনুচ্চিদের নিয়ে গড়া জুভেন্টাসের রক্ষণ চাপটা সামলেছে বেশ ভালোভাবেই। বেশ কিছু গোলের সুযোগ আসলেও তা কাজে লাগাতে পরেনি মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ-ইনিয়েস্তারা। ম্যাচের ১৭ মিনিটে মেসির লম্বা থ্রুতে জর্দি আলবা পা ছোঁয়াতে পারলেও ভিন্ন কিছু হতে পারতো। এরপর ১৯ মিনিটে মেসির শটও বাইরে দিয়ে চলে যায়। আর বিশ্রাম শেষে ৬৬ মিনিটে মেসি আরও একটি সহজ সুযোগ মিস করলেন। গোল মিসের মহড়ায় ছিলেন সার্জি রাবার্তোও।

গতকালের ম্যাচের আগে ক্যাম্প ন্যুতে শেষ চার ম্যাচে বার্সেলোনার গোল সংখ্যা ছিল ২১টি। অথচ গতকাল চ্যাম্পিয়নস লিগের টিকে থাকার ম্যাচে একবারও জালের ঠিকানা খুঁজে পায়নি কাতালান ক্লাবটি। এ থেকেই বুঝা যায় মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের বিপক্ষে রক্ষণে কতটা তৎপর ছিল চিয়েল্লিনি-বুনচ্চিরা।

বার্সেলোনা ক্যাম্প ন্যুতে গোলে শট নিয়েছে ১৯টি। কিন্তু লক্ষ্যে রাখতে পেরেছে মাত্র একটি। সব মিলিয়ে ম্যাচটি নিজেদের পরিকল্পনা মতো হয়নি বলে চ্যাম্পিয়নস লিগে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই ছিটকে পড়তে হল লুইস এনরিকের বার্সেলোনাকে।

Share

আরও খবর