১৩ সেপ্টেম্বর, অনলাইন ডেস্কঃ বিশ্বের নামকরা থিম পার্কগুলোতে ঘুরতে যাওয়া পর্যটকদের জন্য নানা রকম রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতার আয়োজন থাকে। তবে অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশের রাজধানী ডারউইনে অবস্থিত ‘ক্রোকোসাউরাস কোভ’ পার্কে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদের জন্য এমন একটি রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতার ব্যবস্থা করেছে যা রীতিমতো পিলে চমমে যাওয়ার মতো।

পার্কে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদের জন্য কর্তৃপক্ষ বিশাল আকৃতির একটি কুমিরের সাথে সাঁতারের ব্যবস্থা করেছে। যে কেউ একশত তিন পাউণ্ডের বিনিময়ে হিংস্র এই প্রাণীটির সাথে আধা ঘণ্টা সাঁতারের এক বিরল অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবেন।

তবে কুমিরটি পর্যটকদের যেন কোনো প্রকার ক্ষতি করতে না পারে সে জন্য কর্তৃপক্ষ একটি ভিন্ন পন্থা অবলম্বন করেছে। সাঁতার কাটার সময় কুমিরটি পানিতে উন্মুক্ত থাকলেও যারা সাঁতারে অংশগ্রহণ করবে তাদের একটি প্লাস্টিকের খাঁচার মাধ্যে রাখা হবে। ‘কেজ অব ডেথ’ বা ‘মৃত্যু খাঁচা’ নামের এই খাঁচার মধ্যে একসাথে সর্বোচ্চ দুইজন সাঁতার কাটতে পারবেন।

সাঁতার কাটার সময় কুমিরটিকে বিশেষ ব্যবস্থায় মাংস বা মাছ খাওয়ানো হয় যাতে কুমিরটি পর্যটকদের খাঁচার আশেপাশে ঘোরাঘুরি করে এবং তাদের মনে হয় তারা কুমিরটির সাথে উন্মুক্ত পানিতে সাঁতার কাটছে।

কুমিরের সাথে সাঁতার কাটার এই ব্যবস্থাটি পর্যটকদের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলেছে। জার্মান পর্যটক নেইল উইন্টারস বলেন, ‘এটা দারুণ এক অভিজ্ঞতা, তবে ভীতিকরও বটে। পানির নিচে ষোল ফুট দীর্ঘ বিশাল আকৃতির কুমিরটি যখন আপনার খাঁচার চারপাশে ঘুরে বেড়াবে তখন মনে হবে এটা আপনাকে খেয়ে ফেলবে। প্রচণ্ড ভয়ের সাথে আপনি অবশ্যই রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা অর্জন করবেন।’

Share

আরও খবর