২ ফেব্রুয়ারি, অনলাইন ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রের অরেগন রাজ্যের পোর্টল্যান্ড শহরের অ্যাসলে গ্লাও নামক এক মহিলা গত সোমবার একটি ছবি প্রকাশ করেন তার ফেসবুকে। ছবিতে দেখা যায়, তার বারট নামক পোষা পাইথনটিকে কানের লতির ছিদ্রে ঝুলে আছে।

মুহূর্তের মধ্যেই প্রায় ৩২০০০ শেয়ার হয় এই ছবিটির। সঙ্গে নানা আলোচনা এবং সমালোচনা। তবে সমালোচনার মন্তব্যই ছিল বেশি। কেননা ছবিটি প্রথমবার দেখলে যে কারোর মনে হবে গ্লাও হয়তো ফ্যাশন করার জন্য এই কাণ্ডটি ঘটিয়েছেন। কিন্তু তা নয়।

এ ব্যাপারে গ্লাও বলেন, ‘আমি নিজে কিছু বুঝে উঠবার আগেই সব কিছু ঘটে যায়। আমি যতক্ষণে বার্টকে সরানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম ততক্ষণে বারটের পেট আমার কানের সঙ্গে আটকে গেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি তাড়াতাড়ি হাসপাতালে চলে আসি এবং জরুরি বিভাগে অপেক্ষা করতে থাকি ডাক্তারের জন্য যাতে করে কেউ না কেউ আমার প্রিয় বার্টকে এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করতে পারে।’

ঘটনা হচ্ছে, গ্লাওয়ের কানের লতিতে একটি বিরাট আকৃতির ছিদ্র ছিল। খেলার সময় বার্ট সেই ছিদ্রেই আটকে গিয়েছিল। তবে সব শেষে কোনো প্রকার ক্ষতি ছাড়াই ডাক্তাররা বার্টকে বের করে আনতে সক্ষম হন। এক্ষেত্রে তারা গ্লাওয়ের কানের ছিদ্র কিছুটা কেটে ভ্যাসলিন ব্যবহার করেন সাপটিকে বের করে আনেন।

এই ঘটনার জন্য গ্লাও বেশ অনুতপ্ত। অনেকে তাকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠালেও তিনি বলেন, আমার মাথাতে কেবল বার্টকে বের করার চিন্তা এসেছিল। আমি যেকোনো কিছুর বিনিময়ে বার্টকে সুস্থ ফেরত পেতে চাইছিলাম। ফ্যাশন বা অন্য কোনো উদ্দেশ্যে আমার ছিল না।

তথ্যসূত্র: টেলিগ্রাফ

Share

আরও খবর