২৫ মার্চ, ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো জাতিসংঘের কাছে তার দেশে ওষুধ সরবরাহ জোরদার করতে সাহায্য চেয়েছেন।

মাদুরো বলেছেন, ওষুধ সরবরাহ স্বাভাবিক করায় ও দেশজুড়ে ওষুধ বণ্টন করায় জাতিসংঘের ভালো দক্ষতা রয়েছে।

ভেনেজুয়েলার মেডিক্যাল ফেডারেশন সম্প্রতি জানিয়েছে, প্রয়োজনের তুলনায় ৫ শতাংশের কম ওষুধ রয়েছে হাসপাতালগুলোতে।

প্রেসিডেন্ট মাদুরো অভিযোগ করেছেন, তার সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদের ‘অর্থনৈতিক যুদ্ধ’ ও তেলের দাম পড়ে যাওয়ায় ওষুধ সরবরাহে সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার টেলিভিশনে কথা বলার সময় মাদুরো বলেন, ‘যে অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষতির শিকার হয়েছে আমাদের জনগণ, তা থেকে উত্তরণে জাতিসংঘের সাহায্য চেয়েছি আমি।’

তবে ভেনেজুয়েলার বিরোধীরা দাবি করছে, মাদুরোর অর্থনৈতিক অব্যবস্থাপনার কারণেই দেশে অর্থনৈতিক সংকট তৈরি হয়েছে।

খাদ্যসহ অন্যান্য সামগ্রীর তীব্র সংকট গ্রাস করেছে ভেনেজুয়েলাকে। প্রতিদিনের খাদ্যসামগ্রী জোগাড় করতে লোকজনকে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়াতে হয়। ওষুদ কেনার চিত্র এর চেয়ে আলাদা নয়।

দেশের বাইরে থেকে মাদুরোর সাহায্য চাওয়ার অর্থ দাঁড়ায়, ভেনেজুয়েলার অর্থনৈতিক অবস্থা খুবই খারাপ। তবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেলক্ষেত্রগুলোর মধ্যে কয়েকটি রয়েছে এই দেশে।

ভেনেজুয়েলার লোকজন খাদ্য, ওষুধ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর ওপর মারাত্মকভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় সরকার ও বিরোধীরা পরস্পরকে দূষছে। কিন্তু অবস্থা দিন দিন আরো নাজুক হয়ে পড়ছে।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন।

Share

আরও খবর