১৮ এপ্রিল, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) পর এবার ব্যাংকিং খাতও আয়োজন করেছে বাংলা সংস্কৃতির হালখাতা।

রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের (রাকাব) দিনাজপুর উত্তর জোনের আওতাধীন রানীর বন্দর শাখার মাধ্যমে ব্যাংকের হালখাতা-১৪২৪ ও বৈশাখী মেলা আজ মঙ্গলবার শেষ হচ্ছে।

এর আগে শ্রেণিকৃত ও সম্ভাব্য শ্রেণিকৃত ঋণগ্রহীতাদের ঋণের টাকা পরিশোধে উদ্বুদ্ধ করতে গতকাল সোমবার ব্যাংকের হালখাতা ও বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করা হয়। রাকাব পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান ও সরকারের প্রাক্তন সচিব মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে হালখাতা ও বৈশাখী মেলার উদ্বোধন করেন।

এ সময় রংপুর বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মাহমুদুন্নবী, দিনাজপুর উত্তর জোনের জোনাল ব্যবস্থাপক মো. বদিউজ্জামান প্রধান, শাখা ব্যবস্থাপক মো. মোজাহার হোসেন, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, ঋণগ্রহীতারাসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে ব্যাংকের শ্রেণিকৃত ও সম্ভাব্য শ্রেণিকৃত ঋণগ্রহীতাদের ঋণের টাকা পরিশোধ করে প্রয়োজনে পুনরায় ঋণগ্রহণ এবং লাভজনক বিনিয়োগের মাধ্যমে নিজেদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করেন মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম।

ব্যাংকের তহবিল ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে বিভিন্ন আকর্ষণীয় ও লাভজনক সঞ্চয় স্কিমগুলোকে কাজে লাগিয়ে আমানত সংগ্রহ কার্যক্রমকে ফলপ্রসূ করার জন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এদিন রংপুর বিভাগের সৈয়দপুর, বীরগঞ্জ, নারগুন, ঠাকুরগাঁও, আউলিয়াপুর, বোদা, ধাক্কামারা, পঞ্চগড়, ভজনপুর এবং তেঁতুলিয়া শাখার শুভ হালখাতা ও মেলায় প্রায় দুই হাজার ঋণগ্রহীতার কাছ থেকে তিন কোটি টাকা শ্রেণিকৃত ও সম্ভাব্য শ্রেণিকৃত ঋণ আদায় হয়।

আজ মঙ্গলবারও একযোগে ব্যাংকের সব শাখায় হালখাতা ও বৈশাখী মেলা কার্যক্রম চলবে।

এর আগে করদাতাদের বকেয়া কর পরিশোধে উদ্বুদ্ধ করতে গত ১৩ এপ্রিল প্রথমবারের মতো হালখাতা উৎসবের আয়োজন করে এনবিআর।

Share

আরও খবর