১৯ জানুয়ারি, ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ উত্তর ইউরোপজুড়ে শক্তিশালী ঝড়ো হাওয়ার কারণে দুর্ঘটনায় অন্তত আটজন নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই জার্মানি ও নেদারল্যান্ডসের বাসিন্দা। গাছ উপড়ে গিয়ে অথবা ঝড়ো হাওয়ায় আসা বর্জ্যের আঘাতে তাদের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন জার্মানির অগ্নিনির্বাপন বাহিনীর কর্মীও রয়েছে। তারা ঝড়ের সময় ভারী বস্তু সরিয়ে নেওয়ার কাজ করছিলেন।

ঘন্টায় ১৪০ কিলোমিটার বাতাসের কারণে জার্মানির ট্রেন অপারেটর ডাচেস বাহন দূরযাত্রা বাতিল করেছে। অনেক আঞ্চলিক সেবাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ঝড়টি পোল্যান্ডের দিকে সরে যাওয়ার আগে জার্মানির পশ্চিম থেকে পূর্ব দিকে বয়ে গেছে। জার্মানির অনেক অঞ্চলে বৃহস্পতিবার স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়। প্রায় ৬৫ হাজার মানুষ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে বলে আবহাওয়া বিভাগ জানিয়েছে।

ইউরোপের অন্যতম ব্যস্ত আমস্টার্ডামের শিফোল বিমানবন্দরে ঝড়ের কারণে বিমান চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়। ছাদ থেকে ছাউনি ধসে পড়ায় বিমানবন্দরের তিনটি বর্হিগমন হল বন্ধ করে দেওয়া হয়। আমস্টার্ডামের পূর্ব দিকের শহর আলমেরি সাময়িকভাবে পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। শহরটিতে প্রায় ২ লাখ বাসিন্দা রয়েছে। নেদারল্যান্ডসের জাতীয় পরিবহন বিভাগের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে ঝড়ে ১৭টি ট্রাক উল্টে গেছে।

ঝড়ে বুধবার রাত থেকে শুরু করে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বিপর্যস্ত ছিল যুক্তরাজ্য। দেশটির প্রায় এক লাখ লোক বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে।

Share

আরও খবর