শ্রাবনী ফেরদৌসশ্রাবনী ফেরদৌস। যিনি একাধারে একজন নাট্যকার, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর ও সফল মা।  আজ আমাদের ‘ টাইমস টু হ্যালো ’ র আড্ডায় তিনি বললেন তাঁর কাজ ও নিজস্ব কিছু কথা।

দি টাইমস ইনফোঃ কেমন আছেন ?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ ভাল।
দি টাইমস ইনফোঃ ব্যস্ততা কেমন ?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ আর টিভিতে আমাদের সিরিয়াল যাচ্ছে। ‘অনাকাঙ্ক্ষিত সত্য’, যার চিত্রনাট্য আমি করছি আর সাথে সাথে ক্রিয়েটিভ ডিরেকশনটাও দেখতে হচ্ছে। তাই বলা চলে বেশ ভালই ব্যস্ত আছি।
দি টাইমস ইনফোঃ সিরিয়ালটির গল্পটি কেমন-
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ সিরিয়ালের নাম ‘অনাকাঙ্ক্ষিত সত্য’। বলতে গেলে আমাদের প্রতিদিনের কিছু দুঃস্বপ্ন বা অপরাধ কিংবা অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনার গল্প নিয়েই লেখা হচ্ছে চিত্রনাট্য। বলতে বলতে ৫০ পর্ব স্যুটিং শেষ হয়ে গেছে। তাই অনেক খুশি আমরা।
দি টাইমস ইনফোঃ এই সিরিয়াল করতে গিয়ে বাস্তব কিছু অভিজ্ঞতা কিংবা কোন ঘটনার কথা যদি বলতেন?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ অভিজ্ঞতা তো হয়েছেই। নিজের চোখে দেখা সত্য গল্প নিয়ে কাজ করেছি আবার কারও জীবনের কোন দুঃস্বপ্ন নিয়েও লিখেছি চিত্রনাট্য। একটা গল্প শেয়ার করি, আমাদের টিমেরই একজন অভিনেত্রী একটা ট্রাপে পরেছিলেন। কিছু অসৎ ব্যক্তি তাঁকে প্রলোভন দেখিয়ে একটা কাজের কথা বলে, লোভ দেখায়। পরে আমাদের টিম প্লান করে সেই ট্রাপ থেকে তাঁকে উদ্ধার করে এবং পরে এই ঘটনা নিয়েই একটি চিত্রনাট্য তৈরি করে কাজ করা হয়।
দি টাইমস ইনফোঃ নিজের কাজ নিয়ে কতটা সন্তুষ্ট?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ সন্তুষ্ট…… হ্যা মোটামুটি। চেষ্টা করি ভাল কিছু করার। আর যেহেতু প্রতি সপ্তাহে এক ঘন্টার একটা করে প্রডাকশন যাচ্ছে তাই একটু চাপের মধ্যে থেকেই কাজ করতে হয়। তবুও ভাল কিছু করতে চেষ্টা করি। ……এইত।
দি টাইমস ইনফোঃ মঞ্চের কাজের কি অবস্থা?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ আসলে অনেকদিন প্রায় দেড় বছর হয়েছে আমি মঞ্চে সময় দিচ্ছিনা। বলতে গেলে পুরোপুরি মঞ্চ থেকে দূরে আছি। তবে আমি চাই আবার মঞ্চে ফিরতে কারণ মঞ্চকে আমি অনেক অনেক মিস করি।কারণ মঞ্চ আমার জায়গা।
দি টাইমস ইনফোঃ ভবিষ্যতে কি করতে চাচ্ছেন ?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ মুভি নিয়ে ভাবছি। দুটো স্ক্রিপ্ট লেখা হয়েছে এখন প্রডিউসারের জন্য অপেক্ষা।
দি টাইমস ইনফোঃ বর্তমান মিডিয়ার অবস্থান কোথায়?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ অনেক ভাল, ভাল কাজ হচ্ছে। কাজের মানও আগের থেকে অনেক বেড়েছে। আর আমরাও ভাল কাজ করার চেষ্টা করি। আর আশা রাখি সামনে আরও অনেক ভাল কাজ হবে। আর একটা কথা আমাদের এই সল্প পরিসরে অনেক ভাল অভিনেতা অভিনেত্রী আছেন তারাও অনেক ভাল কাজ করছেন যার ফলে প্রডাকশনগুলোও ভাল হচ্ছে।
দি টাইমস ইনফোঃ মিডিয়া সম্পর্কে একটা নেতিবাচক ভাব সবার মধ্যেই থাকে, এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য কি?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ হ্যা, নেতিবাচকতা আছে। তবে সেটার কিছু কারনও আছে। যেমন মিডিয়ার প্রতি সবার একটা আলাদা দৃষ্টি আছে। সবাই কিছুটা উৎসুক থাকে এ বিষয়ে। আর কিছু মানুষ আছে ফায়দা নেয় সবার থেকে নেতিবাচকভাবে আর সেই কারণেই নেতিবাচকতা চলে আসে। তবে এর মানে এই না যে মিডিয়ার বাইরে নেতিবাচক কিছু ঘটেনা। সব জায়গাতেই হয় তবে মিডিয়ারটা বেশি ফলাও করে ছাপা হয় তাই চোখে লাগে। আমরা যদি আমাদের জায়গায় ক্লিয়ার থাকি, সচেতন হই আর জেনে শুনে কাজ করি তাহলে আর এই সমস্যাটা থাকবে না।
দি টাইমস ইনফোঃ কাজের ফাঁকে পরিবারকে ও নিজেকে কতটুকু সময় দেন?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ আমার স্বামী ও আমি একসাথেই কাজ করি তাই সারাদিনই পরিবারের কাছে থাকি। আর আমার একটা মেয়ে ওর বয়স ১০ বছর, ও অসাধারণ একটা বাচ্চা। আমাদের কোন কিছু বলে কয়ে করাতে হয়না, ও নিজ থেকেই সব কিছু করে।
দি টাইমস ইনফোঃ এবার কিছু প্রশ্ন করব, অনেকটা এক কথায় উওরের মত-
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ হ্যা, অবশ্যই।
দি টাইমস ইনফোঃ পছেন্দর খাবার কি?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ চটপটি, ফুচকা, ভর্তা ভাজি।
দি টাইমস ইনফোঃ অবসরে কি করেন?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ মুভি দেখি, ফেসবুকে বসি।
দি টাইমস ইনফোঃ ভালবাসা তারপর বিয়ে, তো কেমন কাটছে দিন?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ অনেক ভাল।
দি টাইমস ইনফোঃ কত % ভাল?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ ১০০%।
দি টাইমস ইনফোঃ বেস্ট কাপেল বলা যায় কি?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ হ্যা, বলা যায়। তবে আমার জন্য না। শুভ্রর জন্য।
দি টাইমস ইনফোঃ অনেকেই ইর্ষান্বিত আপনাদের এই মধুর সম্পর্কে, তাদের কি বলবেন?
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ লাভ নেই, তোমাদের ইর্ষা আমাদের আরও শক্ত বন্ধনে বাঁধবে।(হেসে)
দি টাইমস ইনফোঃ আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ‘টাইমস টু হ্যালো ’কে সময় দেয়ার জন্য। আপনার জন্য রইল শুভকামনা।
শ্রাবনী ফেরদৌসঃ আপনাদেরকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ। শুভকামনা আপনাদেরও।

Share

আরও খবর