জিয়াউর রহমান১৯ জানুয়ারি, নিজস্ব প্রতিনিধিঃ আজ ১৯ জানুয়ারি। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৭৯তম জন্মবার্ষিকী। ১৯৩৬ সালের এই দিনে বগুড়ার গাবতলীর বাগবাড়ী গ্রামে তার জন্ম হয়। পিতা মনসুর রহমান ও মাতা জাহানারা খাতুন ওরফে রানীর পাঁচ সন্তানের মধ্যে জিয়াউর রহমান ছিলেন দ্বিতীয়।

১৯৫৩ সালে জিয়াউর রহমান তদানীন্তন পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। একাত্তরের ২৭ মার্চ বাঙালি জাতির এক সংকটময় মুহূর্তে চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষে স্বাধীনতার ঘোষণা দেন তিনি। মহান মুক্তিযুদ্ধে অন্যতম সেক্টর কমান্ডার হিসেবে জিয়াউর রহমান বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

১৯৭৫ সালের ৭ নভেম্বর `সিপাহী জনতার বিপ্লবের` মাধ্যমে তিনি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে অধিষ্ঠিত হন। ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন তিনি। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে সেনাবাহিনীর একটি অংশের অভ্যুত্থানে জিয়াউর রহমান নিহত হন।

মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে যুগান্তকারী অবদানের জন্য জাতি চিরদিন শ্রদ্ধাভরে প্রেসিডেন্টে জিয়াউর রহমানকে স্মরণ করবে।

জিয়াউর রহমানের দিবসটি উপলক্ষে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো সারা দেশে বিভিন্ন কর্মসূচি আয়োজন করেছে। বিএনপি সূত্র জানিয়েছে, যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে জিয়াউর রহমানের সমাধি জিয়ারত, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে দিবসটি পালন করা হবে। তবে গুলশান কার্যালয়ে ‘অবরুদ্ধ’ থাকায় এ কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারছেন না দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো দলীয় বিবৃতিতে ঢাকা মহানগরসহ সারা দেশের সব জেলায় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে দিবসটি পালন করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

Share

আরও খবর